সংবাদ কণ্ঠ - ‘নগ্ন’ মন্তব্যে বিতর্কে দীপিকা, আসলে কী বলেছেন…
জুয়েলারী জগতে আলোচনার কেদ্রবিন্দুতে “ডায়মন্ড সিটি” কেবিন ক্রূ/ ফ্লাইট স্টুয়ার্ড নেবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স (ছেলেমেয়ে উভয়ই) বিনা অভিজ্ঞতায় “কেবিন ক্রু” পদে লোক নিবে নভো এয়ারলাইন্স, যোগ্যতা HSC, আবেদন করতে পারবে ছেলে মেয়ে উভয়ই। অচেনা নায়ক ! Unseen Hero !! কেবিন ক্রু নিয়োগ দেবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ,যোগ্যতা উচ্চ মাধ্যমিক ,আবেদন করতে পারবে ছেলে মেয়ে উভয়ই বিনা অভিজ্ঞতায় “কেবিন ক্রু” পদে চাকরি, যোগ্যতা HSC পাশ, বেতন ৮০০০০ টাকা ইউএস-বাংলার বহরে নতুন বোয়িং যুক্ত ‘চাকরির হতাশায়’ ঢাবি গ্রাজুয়েটের আত্মহত্যা ! নতুন ৫ টিভি চ্যানেলের অনুমোদন , মিডিয়াতে কর্মসংস্থানের ব্যাপক সুযোগ জবস এওয়ানের এক যুগ পূর্তি
ঢাকা, জুন ১৪, ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, স্থানীয় সময়: ১০:১০:৪৭


‘নগ্ন’ মন্তব্যে বিতর্কে দীপিকা, আসলে কী বলেছেন…

| ২৭ অগ্রহায়ন ১৪২২ | Friday, December 11, 2015

ফের মিডিয়ার সঙ্গে সংঘাতে দীপিকা পাড়ুকোন। এবার তাঁর মন্তব্য বিকৃত করার অভিযোগ উঠল। একটি বহুল প্রচলিত ইংরেজি দৈনিক দাবি করে দীপিকা নাকি বলেছেন ‘‘রণবীরের সামনে আমি নগ্নও হতে পারি।’’ এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পরেই হইচই পড়ে যায়। একে রণবীর তার উপর ‘নগ্ন’, এই দুই শব্দের মেলবন্ধনে এক রাতের মধ্যেই টক অফ দ্য টাউন, এই বলি ডিভা। মশলার সন্ধন পেয়েই জোর গুঞ্জন শুরু হয়ে যায় বি-টাউনে। কিন্তু জল্পনা-চর্চা উড়িয়ে দিয়েছেন দীপিকা স্বয়ং। সাফ জানিয়েছেন, মোটেই এই ধরণের কোনও মন্তব্যই তিনি করেননি। তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। এবং রণবীর কপূর নন, তাঁর মন্তব্য ছিল রণবীর সিংহ কে নিয়ে।  দীপিকা বলেছেন,  রণবীরকে তিনি এতটাই বিশ্বাস করেন যে, মনের সব কথা রণবীরের সামনে বলতে পারেন। কারণ, নায়িকা জানেন রণবীর কোনও দিন, কোনও অবস্থাতেই তাঁকে আঘাত করবেন না।

ঠিক কী বলে ছিলেন দীপিকা? সাক্ষাত্কারে দীপিকা বলে ছিলেন ‘‘আই অ্যাম ইমোশনল, সেনসিটিভ অ্যান্ড ভারনারেবল অ্যান্ড ক্যান বি ইসিলি হার্ট। আই ক্যান বি সো নেকেড ইন ফ্রন্ট অফ রণবীর অ্যান্ড আই নো হি উইল নেভার হার্ট মি অর টেক মি ফর গ্রান্টেড। দ্যট ইজ দ্য কাইন্ড অফ ট্রাস্ট অ্যান্ড আন্ডারস্ট্যান্ডিং উই হ্যাভ।’’

যার বাংলা করলে দাঁড়ায় ‘‘আমি আবেগপ্রবণ, সংবেদনশীল। খুব সহজেই আঘাত পাই। রণবীরের সঙ্গে আমি এতটাই স্বচ্ছন্দ যে আমি ওকে সব কিছুই খোলাখুলি জানাতে পারি। আমি জানি ও আমাকে কখনই কষ্ট দেবে না। আমাদের মধ্যে বোঝাপড়া অসাধারণ।’’

কিন্তু গোলটা বাধে ‘নেকেড’ শব্দের ব্যবহারে। দিন কয়েক-এর মধ্যেই মুক্তি পাবে রণবীর-দীপিকা অভিনীত ‘বাজিরাও মস্তানি’। রটে যায় তার প্রচারের কৌশল হিসেবেই কি  ব্যক্তিগত জীবনকেও খোলামেলা করে দিলেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত যে দৈনিকের বিরুদ্ধে দীপিকা প্রথম মন্তব্য বিকৃতির অভিযোগ তুলেছেন, সেই দৈনিকের সঙ্গেই বছর খানেক আগে ঝামেলা বেঁধেছিল তাঁর।  অনুমতি ব্যতীত তাঁর একটি ছবি ‘খোলামেলা’ অ্যাঙ্গেলে তুলে ‘রগরগে’ হেডিং দিয়ে প্রকাশ করার জন্য তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে ছিলেন এই নায়িকা।